Thursday 17 April 2014
বিমানে বেড়ে গেছে যাত্রী Reviewed by Momizat on . চট্টগ্রাম থেকে উড়োজাহাজে বিদেশগামী যাত্রীর সংখ্যা হঠাৎ বেড়েছে। বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সসহ দেশি-বিদেশী বিভিন্ন বিমানে এখন আসন পাওয়াই কঠিন। শাহ আমানত বিমানবন্দর চট্টগ্রাম থেকে উড়োজাহাজে বিদেশগামী যাত্রীর সংখ্যা হঠাৎ বেড়েছে। বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সসহ দেশি-বিদেশী বিভিন্ন বিমানে এখন আসন পাওয়াই কঠিন। শাহ আমানত বিমানবন্দর Rating:
আজকের পত্রিকা » বিমানে বেড়ে গেছে যাত্রী

বিমানে বেড়ে গেছে যাত্রী

চট্টগ্রাম থেকে উড়োজাহাজে বিদেশগামী যাত্রীর সংখ্যা হঠাৎ বেড়েছে। বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সসহ দেশি-বিদেশী বিভিন্ন বিমানে এখন আসন পাওয়াই কঠিন। শাহ আমানত বিমানবন্দর দিয়ে গত দুই সপ্তাহ ধরে প্রতিদিন দেড় থেকে দুই হাজার যাত্রী বিদেশ যাচ্ছে। অথচ তিন সপ্তাহ আগেও প্রতিদিন গড়ে এক হাজার যাত্রী বিদেশ গেছে। সাম্প্রতিক সহিংসতার কারণে মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে ছুটি কাটাতে আসা প্রবাসীরা ছুটির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই চলে যাচ্ছে। হরতাল-অবরোধে সড়ক ও রেলপথে নানা বিড়ম্বনার কারণে উড়োজাহাজে যাত্রীর সংখ্যা বেড়েছে।

জানা গেছে, বর্তমানে শাহ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর দিয়ে সপ্তাহে অন্তত ৩০ থেকে ৩৫টি ফ্লাইট মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন রুটে চলাচল করে। এরমধ্যে রয়েছে বিমান এয়ারলাইন্স, ওমান এয়ারলাইন, আরএকে এয়ার, এয়ার এরাবিয়া ও  ফ্লাই দুবাই। এছাড়াও প্রতিদিন ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটে চলছে বেসরকারি বিমান সংস্থা রিজেন্ট এয়ারওয়েজ, ইউনাইটেড এয়ার ও নভো এয়ার।

এ প্রসঙ্গে বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের বিমানবন্দর স্টেশন ব্যবস্থাপক মো. হাবিবুর রহমান বলেন, ‘গত কয়েক সপ্তাহ ধরে বিমান এয়ারলাইন্সসহ অন্যান্য থার্ড ক্যারিয়রে বিদেশগামী যাত্রীর সংখ্যা হঠাৎ বেড়ে গেছে। সম্ভবত দেশের বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে ছুটিতে দেশে আসা প্রবাসীরা ছুটির মেয়াদ শেষ হওয়ার আগেই বিদেশ পাড়ি দিচ্ছে।’ এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘প্রতিদিন গড়ে দেড় থেকে দুই হাজার যাত্রী উড়োজাহাজে চট্টগ্রাম ছাড়ছে। অথচ তিন সপ্তাহ আগেও শাহ আমানত বিমানবন্দর দিয়ে প্রতিদিন গড়ে এক হাজার যাত্রী বিদেশ গেছে।’

বাংলাদেশ বিমান এয়ারলাইন্সের এক কর্মকর্তা নাম প্রকাশ না করে গতরাতে সুপ্রভাতকে বলেন, ‘জামায়াত নেতা দেলোয়ার হোসাইন সাঈদীর ফাঁসির রায় ঘোষণার  পর থেকে দেশজুড়ে শুরু হওয়া সহিংসতার জেরে অনেক ব্যবসায়ী ট্রেন বা বাসে ঢাকা যাওয়া-আসাকে নিরাপদ মনে করছেন না। তাই অনেকে আকাশ পথে ঢাকা যাওয়া-আসাকে নিরাপদ মনে করছে।’

এ ব্যাপারে তৈরি পোশাক প্রস্তুতকারীদের সংগঠন বিজিএমইএ’র  প্রথম সহ-সভাপতি নাসির উদ্দিন চৌধুরী গতরাতে সুপ্রভাত বাংলাদেশকে বলেন, ‘বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে ব্যবসায়ীরা ট্রেন ও বাস যোগে ঢাকা যাওয়া আসাকে নিরাপদ মনে করছেন । হরতালে তপ্ত মহাসড়ক, গাড়ি ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগসহ নানা সহিংসতার কারণে গত কয়েকদিন ধরে শুধু  ব্যবসায়ীরা নন প্রবাসীরাও উড়োজাহাজে ঢাকা যাওয়া-আসাকে নিরাপদ মাধ্যম হিসেবে বেছে নিয়েছেন।’

তার এ বক্তব্যের সঙ্গে একমত পোষণ করেন বেসরকারি বিমান সংস্থা নভো এয়ারের বিক্রয় ও গ্রাহক সেবা তত্ত্বাবধায়ক মো. জয়নাল আবেদিন জুনু। তিনি গতরাতে সুপ্রভাত বাংলাদেশকে বলেন, ‘চলমান রাজনৈতিক পরিস্থিতির কারণে সম্ভাব্য ঝুঁকি এড়াতে মধ্যপ্রাচ্য প্রবাসীদের  অনেকেই ছুটি না কাটিয়ে বিমানে বিদেশ ছুটছে।’

আপনার মন্তব্য লিখুন

Scroll to top